অন্ধ বলে থেমে নেই জন্মান্ধ রিপন !

0
105
https://www.noakhalitimes.com

নুর উদ্দিন মুরাদ, বিশেষ প্রতিনিধি :: জন্মগত অন্ধ। তাই বলে কি থেমে থাকবে রিপন? না, থেমে নেই মোহাম্মদ ইমরোজ রিপন (৩৩)। একাধারে একজন ইলেক্ট্রেশিয়ান, একজন দোকানদার, একজন ব্যবসায়ী।

সৃষ্টিকর্তা অন্ধ করেই পাঠিয়েছেন নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জের চরহাজারী ইউনিয়নের ৮ নং ওয়ার্ডের আবদুস সোবহান মেম্বারের বাড়ীর আবদুস সোবহান মেম্বারের পুত্র রিপনকে। জন্মের পর যখন পিতা জানতে পারলেন তার সন্তান অন্ধ তখন কান্নায় ভেঙ্গে পড়েছিলেন পিতা আবদুস সোবহান।

বয়স যখন ১৫ ছুঁই ছুঁই। তখন অন্ধ রিপনের নানান কর্ম এলাকার সবাই ও পিতা আবদুস সোবহান অবাক প্রায়। ইলেকট্রনিক্স সহ যাবতীয় কাজ গুলো খুব নিঁখুত ভাবেই করছেন। এরপর বিয়েও করেছেন।জানা যায়, এক মেয়ে ও এক ছেলের জনক বর্তমানে রিপন। ইলেকট্রিক কাজে চরম অভিজ্ঞতা দেখে এলাকার মানুষের কাছে প্রিয় একজন ইলেকট্রেশিয়ান হয়ে উঠে। বিভিন্ন বিল্ডিংয়ের কাজ করে খুব সুচারু ভাবে।

ব্যাক্তিগত জীবন ও পরিচিতির লক্ষ্যে বাড়ীর পাশে একটি ইলেকট্রিক ও মোবাইল রিচার্জ দোকানও করেন।

এদিকে চরহাজারী ইউনিয়নের আমিন উল্যাহ কন্ট্রাকদার বাড়ীর এক লোকের কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান, বিভিন্ন বিল্ডিংয়ের কাজ অন্ধ হয়েও নিঁখুত ভাবে করায় তিনি তার কর্মে অবাক হয়ে তার বিল্ডিংয়ের কাজও তাকে দেন। অন্য অপারেটর থেকেও সুন্দর ভাবেই কাজ সম্পাদন করেন।

এবিষয়ে জন্মান্ধ রিপনের কাছে তার জীবন সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি জানান,আল্লাহ আমাকে অন্ধ বানিয়েছেন তবে বিবেক ও বুদ্ধি অবশ্যই দিয়েছেন।যেমনটি প্রত্যেক মানুষকে আল্লাহ দিয়েছেন। তবে অনেকেই সে বুদ্ধিমত্তা কাজে লাগান না। যার ফলে সব থেকেও তারা বেকার। তিনি জানান,জন্মের পরে অনেকেই তাকে অন্ধ দেখে অনেক মন্তব্য করতেন তবে তিনি কখনই হতাশ হতেন না। তিনি মনে করেন আল্লাহর এটাও এক ধরনের পরীক্ষা।

এসময় তিনি জানান, অর্থের অভাবে প্রয়োজনীয় কিছু যন্ত্রপাতি কিনতে না পারায় লক্ষ্য অনুযায়ী কাজ করতে পারছেন না। যদি সরকার একটু এগিয়ে আসে তবে তিনি সরকারের কাছে কৃতজ্ঞ থাকবেন।
https://www.noakhalitimes.com

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে