ওবায়দুল কাদেরকে কটূক্তি করায় জেলা কমিটি বিলুপ্ত না হওয়া পর্যন্ত মেয়র কাদের মির্জার অবস্থান কর্মসূচি চলবে

0
90

কোম্পানীগঞ্জ (নোয়াখালী) প্রতিনিধি :: নোয়াখালী জেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক ও ৪ আসনের সংসদ সদস্য একরামুল করিম চৌধুরী কর্তৃক বাংলাদেশ আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরকে নিয়ে কটূক্তি করার প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল, সমাবেশ ও অনশন কর্মসূচি ঘোষণা করেছে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আ’লীগ। সন্ধ্যা ৬ঘটিকা থেকে বঙ্গবন্ধু চত্বরে মেয়র আবদুল কাদের মির্জা নেতা কর্মীদের নিয়ে অবস্থান কর্মসূচী অব্যাহত রাখেন।

এর পূর্বে ৩টায় বিক্ষোভ সমাবেশের মঞ্চ থেকে মেয়র আবদুল কাদের মির্জা এ ঘোষণা দেন। তিনি আরো জানান, বসুরহাট বাজারের রুপালী চত্তর থেকে বিকেল ৫টায় বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ শেষে সংবাদ সম্মেলনে তিনি বাকী কর্মসূচি ঘোষণা দিবেন।

উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ১২টা ১০ মিনিটের সময় নোয়াখালী জেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক ও ৪ আসনের সংসদ সদস্য একরামুল করিম চৌধুরী তার ভেরিফাইড ফেইসবুক আইডি থেকে ফেইসবুক লাইভে এসে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের পরিবারকে রাজাকারের পরিবার বলে আখ্যায়িত করে আগামী কয়েকদিনের মধ্যে এসব নিয়ে কথা বলা শুরু করবেন বলে হুমকি দিয়ে একটি ভিডিও আপলোড করেছেন নোয়াখালী জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক একরামুল করিম চৌধুরী। ইতিমধ্যে একরামুল করিম চৌধুরীর এ বক্তব্যের বিরুদ্ধে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রতিবাদের ঝড় উঠেছে।

২৭ সেকেন্ডের এই ভিডিও ক্লিপে তিনি বলেন,দেশী মানুষ, স্লামালাইকুম। আমি কথা বললেতো মির্জা কাদেরের বিরুদ্ধে কথা বলবো না, আমি কথা বলবো ওবায়দুল কাদেরের বিরুদ্ধে। একটা রাজাকার ফ্যামিলির লোক এই পর্যায়ে আসছে তার ভাইকে শাসন করতে পারেনা। এগুলো নিয়ে আমি আগামী কয়েকদিনের মধ্যে কথা বলবো। আমার যদি জেলা কমিটি না আসে তাহলে আমি এটা নিয়ে শুরু করবো।

তার ফেইসবুক আইডি ঘুরে দেখা যায়, তাৎক্ষণিক তিনি তার ফেইসবুক আইডি থেকে লাইভ ভিডিওটি সরিয়ে নেন। এর আগেই কয়েক মিনিটের মধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে তার ভিডিও বক্তব্যটি ভাইরাল হয়ে যায়।

নোয়াখালী জেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক ও ৪ আসনের সংসদ সদস্য একরামুল করিম চৌধুরী কর্তৃক বাংলাদেশ আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরকে নিয়ে কটূক্তি করার প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল, সমাবেশ ও অনশন কর্মসূচি ঘোষণা করেছে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আ’লীগ। সন্ধ্যা ৬ঘটিকা থেকে বঙ্গবন্ধু চত্বরে মেয়র আবদুল কাদের মির্জা নেতা কর্মীদের নিয়ে অবস্থান কর্মসূচী অব্যাহত রাখেন।

এর পূর্বে ৩টায় বিক্ষোভ সমাবেশের মঞ্চ থেকে মেয়র আবদুল কাদের মির্জা এ ঘোষণা দেন। তিনি আরো জানান, বসুরহাট বাজারের রুপালী চত্তর থেকে বিকেল ৫টায় বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ শেষে সংবাদ সম্মেলনে তিনি বাকী কর্মসূচি ঘোষণা দিবেন।

উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ১২টা ১০ মিনিটের সময় নোয়াখালী জেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক ও ৪ আসনের সংসদ সদস্য একরামুল করিম চৌধুরী তার ভেরিফাইড ফেইসবুক আইডি থেকে ফেইসবুক লাইভে এসে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের পরিবারকে রাজাকারের পরিবার বলে আখ্যায়িত করে আগামী কয়েকদিনের মধ্যে এসব নিয়ে কথা বলা শুরু করবেন বলে হুমকি দিয়ে একটি ভিডিও আপলোড করেছেন নোয়াখালী জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক একরামুল করিম চৌধুরী। ইতিমধ্যে একরামুল করিম চৌধুরীর এ বক্তব্যের বিরুদ্ধে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রতিবাদের ঝড় উঠেছে।

২৭ সেকেন্ডের এই ভিডিও ক্লিপে তিনি বলেন,দেশী মানুষ, স্লামালাইকুম। আমি কথা বললেতো মির্জা কাদেরের বিরুদ্ধে কথা বলবো না, আমি কথা বলবো ওবায়দুল কাদেরের বিরুদ্ধে। একটা রাজাকার ফ্যামিলির লোক এই পর্যায়ে আসছে তার ভাইকে শাসন করতে পারেনা। এগুলো নিয়ে আমি আগামী কয়েকদিনের মধ্যে কথা বলবো। আমার যদি জেলা কমিটি না আসে তাহলে আমি এটা নিয়ে শুরু করবো।

তার ফেইসবুক আইডি ঘুরে দেখা যায়, তাৎক্ষণিক তিনি তার ফেইসবুক আইডি থেকে লাইভ ভিডিওটি সরিয়ে নেন। এর আগেই কয়েক মিনিটের মধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে তার ভিডিও বক্তব্যটি ভাইরাল হয়ে যায়।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে