কোম্পানীগঞ্জে মুছাপুর ক্লোজারে বেড়াতে গিয়ে কিশোরী গণধর্ষণের শিকার, গ্রেপ্তার-২

0
241

কোম্পানীগঞ্জ (নোয়াখালী) প্রতিনিধি :: বেড়াতে গিয়ে ১৭ বছর বয়সী এক কিশোরী গণধর্ষণের শিকার হয়েছে—এমন অভিযোগে মামলা হয়েছে। গতকাল শনিবার সন্ধ্যায় নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জের ‘মিনি কক্সবাজার’ খ্যাত মুছাপুর ক্লোজার এলাকার সংরক্ষিত বনে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার সঙ্গে জড়িত অভিযোগে পুলিশ দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে।

dorshok
গ্রেপ্তারকৃত ধর্ষক দুধমুখা এলাকার চন্ডিপুর গ্রামের টিকেন্দ্র শীলের ছেলে প্রদীপ শীল ও মুছাপুর ক্লোজার এলাকার মাওলানা জাহিদুল হকের ছেলে নাজমুল হক সোহাগ

ওই কিশোরীর বাড়ি ফেনীর দাগনভূঞা উপজেলায়। পার্শ্ববর্তী গ্রামের পূর্বপরিচিত প্রদীপ শীল নামে এক যুবকের সঙ্গে সে নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জের মুছাপুর ক্লোজারে বেড়াতে গিয়েছিল।

কোম্পানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সৈয়দ ফজলে রাব্বী বলেন, এ ঘটনায় কিশোরীর বাবা বাদী হয়ে আজ রোববার মামলা করেছেন। মামলায় অভিযোগ করা হয়েছে, মুছাপুর ক্লোজার এলাকায় বেড়াতে গিয়ে ওই কিশোরী প্রথমে পরিচিত যুবকের দ্বারা এবং পরে কয়েকজন স্থানীয় বখাটে যুবকের দ্বারা ধর্ষণের শিকার হন। এ মামলায় প্রদীপ শীল (২৭) ও মো. নাজমুল হক সোহাগ (২৫) নামের দুজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ওসি জানান, প্রদীপের বাড়ি ফেনীর দাগনভূঞা উপজেলায়। তিনি আনসার সদস্য হিসেবে চট্টগ্রাম বন্দরে কর্মরত। আর মো. নাজমুল হক সোহাগ মুছাপুর ক্লোজার এলাকার সংরক্ষিত বনের অস্থায়ী বনপ্রহরী। প্রদীপকে রবিবার নোয়াখালীর বিচারিক হাকিমের আদালতে পাঠানো হয়েছে। আর নাজমুলকে থানায় জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। সোমবার তাঁকে আদালতে পাঠানো হবে। আর ধর্ষণের শিকার কিশোরীর প্রয়োজনীয় পরীক্ষা-নিরীক্ষা নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে সম্পন্ন হয়েছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে