কোম্পানীগঞ্জে শিক্ষকের উপর হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন

0
130

নুর উদ্দিন মুরাদ,বিশেষ প্রতিনিধি :: নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে গত ৫ এপ্রিল দুপুরে বজ্রপাতে চরপার্বতী এস.সি উচ্ছ বিদ্যালয়ের ২৮ জন শিক্ষার্থী আহত হওয়ার ঘটনায় শিক্ষকদের উপর দায় চাপিয়ে কিছু দূর্বৃত্ত লাঠি হাতে বিদ্যালয় ও বিদ্যালয় শিক্ষক দের উপর হামলা চালিয়ে শিক্ষকদের আহত করার প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী, ম্যানেজিং কমিটির সদস্য ও এলাকাবাসী।

স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, বজ্রপাতে শিক্ষার্থীর আহত হওয়ার পর তাৎক্ষনিক শিক্ষকদের অক্লান্ত প্রচেষ্টায় শিক্ষার্থীদের হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। কয়েকজন দূর্বৃত্ত সাধারন মানুষের মাঝে গুজব ছড়িয়ে এ হামলা চালায় এতে বিদ্যালয়ে শিক্ষক মাওলানা আবু বক্কর ছিদ্দিক আহত হয়। ঘটনা জানতে পেরে এলাকার সচেতন মহল,  প্রাক্তন শিক্ষার্থী, বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটি সদস্য এবং সুশীল সমাজর মধ্যে ক্ষোভ দেখা দেয়। প্রতিবাদে রবিবার সকাল সাড়ে ১১টায় স্থানীয় কদমতলা বাজারে মানববন্ধন করে।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন,বজ্রপাত দুর্ঘটনা সৃষ্টিকর্তায় ইশারায় হয়। কিন্তু এটাকে পুঁজি করে একজন সম্মানিত শিক্ষকের উপর হামলা অত্যান্ত নিন্দনীয় কাজ। শিক্ষকরা দেশের বিবেক, মানুষ গড়ার কারিঘর। কিন্তু অপপ্রচার চালিয়ে বজ্রপাতে আহতের দায় শিক্ষকদের উপর চাপিয়ে হামলা করা কোনো রকমে মেনে নেয়া যায়না। আমরা এর তীব্র নিন্দা জানাই।

মানববন্ধনে  বক্তারা ৭দিনের আল্টিমেটাম দিয়ে বলেন, ৭ দিনের মধ্যে দোষীদের শাস্তির আওতায় আনতে হবে। না হয় আরো কঠিন আন্দোলনের হুশিয়ারি দিয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।

বিদ্যালয়ের সভাপতি মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান মনির, প্রধান শিক্ষক এ.কে.এম রফিকুল হক, গভার্নিং কমিটি সদস্য ডাক্তার আবু তাহের, সমাজ সচেতন ব্যাক্তিত্ব ও রাজনীতিবিদ সফি উল্যাহ সফি, শিক্ষক ফজলুল করিম, শেখ ফরিদ প্রমুখ মানববন্ধনে অংশগ্রহণ করেন।

এ বিষয়ে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জামিরুল ইসমামের কাছে মুঠো ফোনে জানতে চাইলে তিনি বলেন, বিষয়টি সম্পর্কে আমি অবগত হয়েছি। যে  শিক্ষকের উপর হামলা হয়েছে তাকে মামলা করার জন্য পরামর্শ দিয়েছি। ঘটনাটি তদন্ত করে ব্যাবস্থা নেয়া হবে বলে জানান।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে