কোম্পানীগঞ্জে সহানুভূতি দেখাতে গিয়ে ইউপি মেম্বার কর্তৃক গৃহবধূকে ধর্ষনের অভিযোগ

0
120

কোম্পানীগঞ্জ (নোয়াখালী) প্রতিনিধি :: নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে গ্রেপ্তারী পরোয়ানায় স্বামীকে পুলিশ আটকের পর এক গৃহবধূকে সহানুভূতি দেখানোর নামে তার ঘরে ঢুকে জোর পূর্বক ধর্ষণ করার অভিযোগ উঠেছে স্থানীয় ইউপি মেম্বারের বিরুদ্ধে। অভিযুক্ত ইউপি মেম্বার মোজাম্মেল উপজেলার চর এলাহি ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ও চর এলাহি ইউনিয়ন দক্ষিণ শাখা যুবলীগের সভাপতি । এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার থানায় একটি মামলা দায়ের করেন ওই গৃহবধূ।

শুক্রবার সকালে কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি সৈয়দ মো. ফজলে রাব্বী, পরিদর্শক (তদন্ত) আবদুল মজিদ ও এসআই মো. রবিউল হক ঘটনাস্থলে যান। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে মোজাম্মেল মেম্বার এলাকা থেকে পালিয়ে যায়। শনিবার গৃহবধূকে নোয়াখালী আবদুল মালেক উকিল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য পাঠানো হবে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

ওই গৃহবধূ জানান, একটি মামলায় পরোয়ানা থাকায় গত ২৪ নভেম্বর তার স্বামীকে কারাগারে পাঠায় পুলিশ। সহানুভূতি দেখাতে বৃহস্পতিবার রাতে মোজাম্মেল মেম্বার তার বাড়িতে যায়। স্বামীকে জামিনে বের করে আনার প্রতিশ্রুতি দেয় সে। একপর্যায়ে মুখ চেপে ধরে তাকে ধর্ষণ করে মোজাম্মেল মেম্বার। পরে তার আর্তচিৎকারে এলাকার লোকজন বের হয়ে আসলে সে পালিয়ে যায়।
সকালে বিষয়টি স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবদুর রাজ্জাককে জানান ওই গৃহবধূ। পরে মোজাম্মেল মেম্বারকে আসামি করে ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন।

পুলিশের পরিদর্শক (তদন্ত) আবদুল মজিদ বলেন, প্রাথমিক তদন্তে গৃহবধূকে ধর্ষণের সত্যতা পাওয়া গেছে। ডাক্তারি পরীক্ষার রিপোর্ট হাতে পাওয়ার পর বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া যাবে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে