কোম্পানীগঞ্জে ১০৪০ টাকা মণে ধান কিনলেন ইউএনও

0
116
https://noakhalitimes.com

নুর উদ্দিন মুরাদ, বিশেষ প্রতিনিধি :: নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে নিজে দাঁড়িয়ে থেকে সরাসরি কৃষকদের কাছে থেকে ধান ক্রয় করেছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফয়সাল আহমেদ। কৃষকদের ধানের নায্য দাম দিতে সরাসরি কৃষকদের কাছ থেকে ধান সংগ্রহ শুরু করেন তিনি। 

বৃহস্পতিবার বেলা ১১ টায় উপজেলায় খাদ্য বিভাগ ও কৃষি কর্মকর্তা পুষ্পেন্দু বড়ুয়াকে সাথে নিয়ে ধান ক্রয় করেন উপজেলা ইউএনও। প্রতি কেজি ২৬ টাকা যা ১০৪০ টাকা প্রতিমন দরে ধান ক্রয় তদারকি করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফয়সাল আহমেদ ও পুষ্পেন্দু বড়ুয়া। সরকার সরাসরি কৃষকদের কাছ থেকে খাদ্য শষ্য ক্রয় করার ঘোষনা দিলে তা বাস্তবায়ন এবং সাধারন কৃষক যাতে শষ্যের ন্যায্য মূল্যে থেকে বঞ্চিত না হয় সেই লক্ষে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও কৃষি কর্মকর্তা নিজে উপস্থিত থেকে এই ধান ক্রয় তদারকি করেন। কৃষি বিভাগ ধানের গুনগত মানের প্রত্যায়ন দিলেই কৃষকদের কাছ থেকে ধান কেনা হয় ।

 বর্তমান বাজারে ৫ থেকে ৬ শ টাকা মণ বিক্রি হলেও সরকার নির্ধারিত ১ হাজার ৪০ টাকা মণে ধান বিক্রি করে খুশী কৃষকরা। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও কে স্ব-শরীরে উপস্থিত থাকতে দেখে কৃষকরা আপ্লুত হন। 

এবিষয়ে কৃষি কর্মকর্তা পুষ্পেন্দু বড়ুয়া বলেন, মধ্যসত্বভোগীরা যাতে সুবিধা গ্রহণ না করতে সে জন্য কৃষকদের কাছ থেকে সরাসরী ধান কেনা হচ্ছে। তবে উৎপাদনের চেয়ে কেনার লক্ষ্য মাত্রা খুবই কম। তাই কেনার লক্ষ্য বৃদ্ধির জন্য তিনি সরকারের কাছে আবেদন করবেন বলে জানান।

তিনি আরো জানান, চলতি মৌসুমে উপজেলায় রবি মৌসুমে প্রায় ২০০০ হেক্টর জমিতে বোরো ধান চাষ করা হয়েছে। ধানের গড় ফলন হেক্টর প্রতি ৪.৫ মে: টন হিসাব করলেও এই উপজেলায় ধানের ফলন হয়েছে ৯০০০ মে: টন। কিন্তু সরকারি ভাবে মাত্র ৫৭ মে: টন ধান ক্রয় করা হচ্ছে।ধান বিক্রয়ের টাকা কৃষকের ব্যাংক একাউন্টে দেয়া হবে। 

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে