নোয়াখালীর সূবর্ণচরে শিক্ষার্থীকে মারধর করার প্রতিবাদে সহপাঠীদের মানববন্ধন

0
113

সূবর্ণচর (নোয়াখালী) সংবাদদাতা :: নোয়খালীর সুবর্ণচরে সৈকত ডিগ্রি কলেজের স্নাতক প্রথম বর্ষের ছাত্র ঈমাম উদ্দিন সোহেল (২০)কে মারধরের ঘটনায় জড়িতদের শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন করেছে তার সহপাঠী ও পূর্বচরবাটা স্কুল এন্ড কলেজের শিক্ষার্থীরা। আজ রবিবার দুপুরে পূর্বচরবাটা স্কুল এন্ড কলেজ এর শিক্ষার্থীরা কলেজ সড়কে এ মানববন্ধন করে। আহত ঈমাম উদ্দিন সোহেল উপজেলার পূর্বচরবাটা ইউনিয়নের দক্ষিন চরমজিদ গ্রামের কৃষক নুর উদ্দিনের ছেলে।

জানা যায়, গত ১৮ ডিসেম্বর তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সোহেলকে তার বাড়ি থেকে ধরে এনে বিদ্যুতের খুটির সঙ্গে বেঁধে প্রকাশ্যে মারধর করে স্থানীয় আওয়ামী লীগ কর্মী কবির আহম্মদ ব্যাপারী ও তার লোকজন। এক পর্যায়ে সোহেল অজ্ঞান হয়ে পড়লে কবির ব্যাপারী তার লোকজন নিয়ে  চলে গেলে স্থানীয়রা সোহেলকে উদ্ধার করে নোয়াখালী জেলা শহরের একটি প্রাইভেট হাসপাতালে ভর্তি করে। সোহেল বর্তমানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় হাসপাতালে রয়েছে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত কবির ব্যাপারী জানায়, আমার নবম শ্রেণিতে পড়ুয়া মেয়ে লিপি আক্তার (১৪) এর সাথে খারাপ আচরণ করায় আমি রাগের মাথায় সোহেলকে মারধর করেছি।

তবে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন সোহেলের বড় ভাই আলা উদ্দিন জানান, আমার ছোট ভাই কবির ব্যাপারীর মেয়েকে কোন খারাপ আচরণ করেছে এটার কোন স্বাক্ষী প্রমাণ তারা দেখাতে পারেনি। শুধু কারো শোনা কথায় কবির ব্যাপারী দলীয় প্রভাব দেখিয়ে লোক নিয়ে আমার কলেজ পড়ুয়া ভাইকে বেধম মারধর করেছে। এখন পর্যন্ত সে সুস্থ্য হতে পারেনি। তার চিকিৎসা চালাতে বাজারে বাজারে সাহায্য ভিক্ষা করছি। আমার ভাইয়ের প্রতি এ অমানবিক নির্যাতনের বিচারের দাবি জানাচ্ছি।

তিনি আরো জানান, কবির ব্যপারী প্রভাবশালী হওয়ায় আমরা মামলা করতে ভয় পাচ্ছি।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে