মঙ্গলবার প্রধানমন্ত্রী আসছেন, বিভিন্ন দাবীতে সোচ্চার লক্ষ্মীপুরবাসী

0
99
https://www.noakhalitimes.com

লক্ষীপুর সংবাদদাতা :: প্রধানমন্ত্রী আসছেন তাই ফেস্টুন -ব্যানারে চেয়ে গেছে পুরো লক্ষ্মীপুর জেলা। মঙ্গলবার দুপুরে দালাল বাজার ডিগ্রী কলেজ মাঠে অবতরণ করে লক্ষীপুর স্টোডিয়ামে ভাষণ ও বিভিন্ন কাজের ভিত্তিপ্রস্থর স্থাপন ও উদ্ভোধন করবেন।

প্রধানমন্ত্রীর কাছে লক্ষ্মীপুরবাসীর দাবি দীর্ঘ ১৬ বছর পর মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা লক্ষ্মীপুরে আসছেন। তার এই আগমন উপলক্ষে লক্ষ্মীপুরবাসীর মাঝে ব্যাপক উৎসাহ উদ্দিপনা কাজ করছে। লক্ষ্মীপুরবাসীর আশা আকাংখা পূরণে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী কতোটুকু ভূমিকা রাখবেন সেই প্রত্যাশায় প্রহর গুণছেন জেলাবাসী। তবে জোরেশোরে আওয়াজ উঠেছে নদী ভাঙ্গন রোঁধে কার্যকর ভূমিকা নেয়াটাই। ইতোমধ্যে প্রধানমন্ত্রীর কাছে লক্ষ্মীপুর জেলাবাসীর দাবি করেছে বিভিন্ন সংগঠন ও নেতৃবৃন্দ। উল্লেখ্য বিষয় গুলো তুলে ধরা হলো। মেঘনা নদীর ভাঙন রোধে মতির হাট থেকে রামগতি বাজার নদী রক্ষা বাঁধ নির্মান করা, লক্ষ্মীপুর রেল লাইন স্থাপন করা ও বোয়াডার-চৌমুহনী চার লেনে উন্নিত করা, মজু চৌধুরীর হাট -ভোলা নৌবন্দর স্থাপন ও বাস্তবায়ন, চন্দ্রগঞ্জ থানাকে উপজেলায় রুপান্তর করা,লক্ষ্মীপুর জেলা স্টেডিয়ামকে সংস্কার করে আন্তর্জাতিক খেলার আয়োজন করা, হাজীমারা রায়পুর লঞ্চ ঘাট নির্মাণ, রায়পুর ফিস হ্যাচারী আধুনিকায়ান করে পর্যটন কেন্দ্র ঘোষণা, জ্বিনের মসজিককে পর্যটন কেন্দ্র ঘোষনা করা, লক্ষ্মীপুরে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়/ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় বাস্তবায়ন, প্রধানমন্ত্রীর নামে মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল করা,লক্ষ্মীপুরে আর্মি কলেজ/ ক্যাডেট কলেজ প্রতিষ্ঠা করা,লক্ষ্মীপুর মজু চৌধুরীর হাটে বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল বাস্তবায়ন করা, লক্ষ্মীপুর প্রেসক্লাবের জন্য একটি বহুতল ভবন নির্মান করা, মজু চৌধুরীর হাট-আলেকজান্ডার-মেঘার চর কে বিশেষ পর্যটন কেন্দ্র ঘোষনা করা, লক্ষ্মীপুর-রামগঞ্জ-হাজীগঞ্জ-গৌরিপুর সড়ক চালু করা, এয়ারপোর্ট স্থাপন করা, শিক্ষার মান বাড়ানোর জন্য পর্যাপ্ত পরিমাণ শিক্ষক নিয়োগ, সয়াবিন এর ইন্ডাস্ট্রি নির্মাণ, কোল্ড স্টোরেজ স্থাপন, দালাল বাজার দালাল বাড়ীকে পর্যটন কেন্দ্র ও নার্সিং ইনস্টিটিউট করা সহ আরো অনেক দাবী।

তোরাবগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক সানা উল্লাহ সানু বলেন, দাবী তো আমাদের দীর্ঘ দিনের। তবে লক্ষ্মীপুর কে রক্ষা করতে হলে রামগতি, কমলনগর, রায়পুর এর বেড়ীবাঁধ স্থাপন জরুরি। প্রধানমন্ত্রী আমাদের মাঝে সম্ভবত ১৬ বছর পর আসবেন অন্তত সেই জন্য হলেও ১৬টি দাবী পূরন করা প্রয়োজন।

রায়পুর উপজেলা আঃলীগ এর যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কাজী জামশেদ কবির বাক্কী বিল্লাহ বলেন, প্রধানমন্ত্রীর সফর আমাদের জন্য আশীর্বাদ। তিনি জেলা নেতাদের প্রধানমন্ত্রী যেন আবারো আসেন এই জেলা সফরে সেই ভাবে কর্মপরিকল্পনা তৈরি করবেন ভবিষ্যতে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে