লক্ষীপুরে স্কুল ছাত্রীসহ বাবা-বোনকে পিটিয়ে আহত, আটক-৩

0
133
https://www.noakhalitimes.com

লক্ষীপুর সংবাদদাতা :: লক্ষীপুরের কমলনগরে উত্যক্তের প্রতিবাদ করায় সপ্তম শ্রেণির ছাত্রী রেশমা আক্তার, তার বাবা ও বোনকে পিটিয়ে আহত করেছে বখাটেরা। এ ঘটনায় তিন যুবককে আটক করা হয়। আহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আজ শনিবার সকাল পৌনে ১০ টার দিকে বিদ্যালয় যাওয়ার পথে হাজিরহাট মিল্লাত একাডেমী (উচ্চ বিদ্যালয়) সংলগ্ন কবরস্থান এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। আহত স্কুলছাত্রী রেশমা হাজিরহাট মিল্লাত একাডেমীর সপ্তম শ্রেণির ছাত্রী। সে চর জাঙ্গালীয়া গ্রামের কৃষক নুরুল আমিনের মেয়ে। আহত রেশমা ও তার বাবা নুরুল আমিনকে কমলনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। বোন-মারজাহান বেগমকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়।

এ ঘটনায় আটকরা হলেন, চর জাঙ্গালিয়া গ্রামের মৃত আহম্মদ উল্লাহর ছেলে আবদুল খালেক (২৮), আবদুর রহিম (২৬) ও একই এলাকার আহাসানের ছেলে মনির হোসেন (২২)।

স্কুল ছাত্রীর মা হোসনে-আরা বেগম বলেন, রেশমা বিদ্যালয়ে যাচ্ছিল। পথে কবরস্থান এলাকায় পৌঁছলে পাশে দোকানে থাকা স্থানীয় ৪ যুবক খালেক, রহিম, মনির ও তুহিন অশ্লিল ভাষায় উত্যক্ত করে। এসময় প্রতিবাদ করলে ওই চার যুবক গাছের ডাল দিয়ে তার মেয়েকে পিটিয়ে আহত করে। চিৎকারে তার বাবা ও বোন ছুটে আসলে তাদেরকেও পিটিয়ে আহত করা হয়।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সাখাওয়াত হোসেন জানান, পূর্বশত্রুতার জের ধরে বিদ্যালয় আসার পথে স্কুল ছাত্রীকে উত্যক্ত করা হয়। প্রতিবাদ করলে স্কুল ছাত্রীসহ তার বাবা ও বোনকে পিটিয়ে আহত করে। আহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠাই। তাৎক্ষণিক পুলিশকে জানাই। এসময় বিদ্যালয়ের ছাত্ররা দুই যুবককে আটক করে পুলিশ দেয়।

কমলনগর থানার উপ পরিদর্শক (এসআই) সিরাজুল ইসলাম জানান, ঘটনার সাথে জড়িত সন্দেহে দুই যুবককে আটক করে পুলিশে দেয় ছাত্ররা। পরে অভিযান চালিয়ে আরও এক যুবককে আটক করা হয়। এঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলেছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে