হাতিয়ায় কেন্দ্রীয় যুবলীগের সদস্যসহ গুলিবিদ্ধ ২, আহত ৫

0
123
https://www.noakhalitimes.com

হাতিয়া (নোয়াখালী) সংবাদদাতা :: নোয়াখালীর হাতিয়া উপজেলার আফাজিয়া বাজারে সরকারের খাদ্য বান্ধব কর্মসূচির চালের জন্যে ডিলারের গুদাম ঘর ঘেরাও করে হতদরিদ্র লোকজন। এর জেরে সন্ত্রাসীদের গুলিতে কেন্দ্রীয় যুবলীগের এক নেতাসহ দুইজন গুলিবিদ্ধ হয়ছে। এরা হলেন- যুবলীগের কেন্দ্রিয় কমিটির সদস্য আফরাফ উদ্দিন ও আফাজিয়া বাজারের সেলুন দোকানদার কানান চন্দ শীল। তাদেরকে হাতিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এ সময় আহত হয়েছে আরো অন্তত ৫ জন।

হাতিয়ার চর ঈশ্বর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবদুল হালিম আজাদ জানান, গত বুধবার ২ নং ওয়ার্ড সদস্য কামরুল ইসলাম মহব্বত, ৩ নং ওয়ার্ড সদস্য রবীন্দ্র কুমার দাস ও ৫ নং ওয়ার্ড সদস্য আশরাফের নেতৃত্বে একদল স্বশস্ত্র সন্ত্রাসী ইউপি কার্যালয়ে এসে সরকারের খাদ্য বান্ধব কর্মসূচির চালের ১২ কার্ড ছিনিয়ে নিয়ে যায়। বিষয়টি থানায় জানানোর পর বৃহস্পতিবার পুলিশের উপস্থিতিতে দুইজন ডিলার জাতীয় পরিচয়পত্র দেখে কার্ডধারীদের মাঝে চাল বিতরণ করেন। আফাজিয়া বাজারের ডিলার আবুল কালাম চাল বিতরণ বন্ধ রাখায় বিকেলে কয়েকশ নারী পুরূষ তার গুদামঘর ঘেরাও করে। খবর পেয়ে পুলিশ এসে শুক্রবার একই নিয়মে চাল বিতণের আশ্বাস দিলে লোকজন বাড়ি ফিরে যায়। এরপর সন্ধ্যার দিকে ইউপি সদস্য রবীন্দ্র, মহব্বত ও আশরাফের নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী বাজারের এসে এলোপাতাড়ি গুলি ছোঁড়ে। এ সময় একটি দোকানে বসে থাকা অবস্থায় যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও হাতিয়া ডিগ্রি কলেজের প্রভাষক আফরাফ উদ্দিন এবং আফাজিয়া বাজারের সেলুন দোকানদার কানান চন্দ শীল গুলিবিদ্ধ হন।

এ ঘটনার জেরে আওয়ামী লীগ ও যুবলীগের বিক্ষুদ্ধ নেতাকর্মীরা হামলাকারীদের খোঁজে উপজলা সদর ওছখালিতে এসে অবস্থান নেয়। উত্তেজনাকর পরিস্থিতিতে ব্যবসায়ীরা দোকানপাট বন্ধ করে দেন।

হাতিয়া থানার ওসি আবদুল মজিদ জানান, আফাজিয়া বাজারের গুলির খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। তবে, এর আগেই সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। আফাজিয়া বাজার ও ওছখালী সহ বিভিন্ন স্থানে অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে