কোম্পানীগঞ্জে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে শ্যালকের হাতে ভগ্নিপতি খুন

0
165

কোম্পানীগঞ্জ (নোয়াখালী) প্রতিনিধি :: নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলায় তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ভগ্নিপতিকে হত্যা করেছে শ্যালক। মাছ ধরার বিন্তিজাল নিয়ে বাকবিতন্ডার এক পর্যায়ে ক্ষিপ্ত হয়ে ভগ্নিপতি জাফর আহাম্মদকে (৫০) পানিতে ডুবিয়ে হত্যা করেছে শ্যালক শহীদ। সোমবার দুপুরে চরফকিরা ইউনিয়নের চরকচ্ছপিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত জাফর আহাম্মদ চরফকিরা চরকচ্ছপিয়া ৮নং ওয়ার্ডের মৃত মোহাম্মদ আলীর ছেলে ও চরএলাহি ইউনিয়নের নারিকেল ব্যাপারীর দোকান এলাকার মুদি ব্যবসায়ী। শ্যালক শহীদ ওই এলাকার মৃত হলুমিয়ার ছেলে।

পুলিশ নিহতের শ্যালক শহীদকে সোমবার বিকেলে গ্রেফতার করেছে। এ ঘটনায় ভাগ্নে ফয়েজ উল্যাহ তার বাবা জাফর আহম্মদকে উদ্ধার করতে গেলে তাকেও পিটিয়ে আহত করে মামা শহীদ। ফয়েজকে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।  ঘটনার বিবরণে আহত ফয়েজ উল্যাহ জানায়, তার বাবা ও মামা মাছ ধরার জন্য শেয়ারে একটি বিন্তিজাল কিনে। সোমবার দুপুর ২টার দিকে তাকে নিয়ে তার বাবা জাফর আহাম্মদ শহীদের বাড়িতে গিয়ে জাল কোথায় জিজ্ঞেস করলে শহীদ জাল নেয়ার কথা অস্বীকার করে। এ নিয়ে শ্যালক ও ভগ্নিপতি প্রথমে বাকবিতন্ডা পরে হাতাহাতির সময় দুইজন পানিতে পড়ে যায় এবং এসময় তার মামা শহীদ ভগ্নিপতিকে পানিতে ডুবিয়ে হত্যা করে।

কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি (তদন্ত) আবদুল মজিদ জানান, নিহত জাফর আহাম্মদের লাশ উদ্ধার ও ঘাতক শহীদকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে