কোম্পানীগঞ্জে মাদ্রাসা ছাত্রী ও বেগমগঞ্জে প্রবাসীর স্ত্রীকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ, আটক-১

0
114
https://noakhalitimes.com

কোম্পানীগঞ্জ ও বেগমগঞ্জ (নোয়াখালী) সংবাদদাতা :: নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার  সিরাজপুর ইউনিয়নে এক মাদ্রাসা ছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগে ইউছুফ মানিক (৫৫) নামে এক ব্যক্তিকে আটক করেছে থানা পুলিশ। এ ব্যাপারে কোম্পানীগঞ্জ থানায় অভিযুক্তকে প্রধান আসামি করে রবিবার রাতে মামলা করা হয়েছে।

কোম্পানীগঞ্জ থানার অফিসার ইন-চার্জ মীর জাহেদুল হক রনি জানান, সিরাজপুর ইউনিয়নের শাহজাদপুর গ্রামের ৮ নং ওয়ার্ডের মৃত শেখ আহমেদের ছেলে ইউছুফ মানিক (৫৫) ওরফে গাছ কাটা মানিককে স্থানীয় এক মাদ্রাসা ছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টায় প্রথমে এলাকাবাসী হাতেনাতে আটক করে। পুলিশ এলাকাবাসীর সহযোগিতায় ছাত্রীকে উদ্ধার ও অভিযুক্তকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। অভিযুক্ত মানিকের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে ভুক্তভোগীর পিতা মামলা রুজু করেছেন।

ভুক্তভোগীর বাবা জানান, মেয়েটিকে সে টাকার লোভ দেখিয়ে পার্শ্ববর্তী একটি বাগানে নিয়ে যায়। সেখানে মেয়েটিকে ধর্ষণের চেষ্টা করলে সে চিৎকার দেয়। এ সময় পাশ দিয়ে হেঁটে যাওয়ার সময় মেয়েটির কান্না দেখে এলাকাবাসী এগিয়ে আসে। পরে কোম্পানীগঞ্জ থানা পুলিশকে খবর দিলে তারা এসে মেয়েটিকে উদ্ধার ও অভিযুক্তকে আটক করে ।

এদিকে, জেলার বেগমগঞ্জ উপজেলায় এক প্রবাসীর স্ত্রীকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে সোমবার থানায় মামলা হয়েছে। উপজেলার ছয়ানী ইউনিয়নের তাহিরপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, ওই গ্রামের এক প্রবাসী সিরাজ মিয়ার স্ত্রীকে ১৮ ডিসেম্বর ধষর্ণের চেষ্টা করে জাকির নামে এক বখাটে। এ সময় ভুক্তভোগী চিৎকার দিলে সে পালিয়ে যায়। এ বিষয়টি স্থানীয়রা সমাধানের চেষ্টা করেন। কোন সমাধান না হওয়ায় ভুক্তভোগী বাদী হয়ে থানায় মামলা করেন। ভুক্তভোগীর ভাই জানান, জাকির খুব খারাপ ছেলে। তার বিরুদ্ধে আরো এ ধরনের ৪/৫ টি অভিযোগ রয়েছে। একটি ঘটনা এখনো স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদে বিচারাধীন রয়েছে।

বেগমগঞ্জ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কামরুজ্জামান শিকদার মামলা রুজ্জুর বিষয় নিশ্চিত করে জানান,আসামিকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে