কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা বিএনপি’র সম্মেলন চলছে, কমিটি ঘোষিত না হওয়ার সম্ভাবনা

0
163

কোম্পানীগঞ্জ (নোয়াখালী) প্রতিনিধি :: আজ শনিবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) সকাল ১০টায় বসুরহাট পৌরসভা মিলনায়তনে নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা বিএনপি, যুবদল, ছাত্রদলসহ ৯টি সহযোগী সংগঠনের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হচ্ছে।  সম্মেলন হলেও কোন কমিটি ঘোষণা হবেনা। সম্মেলন শেষে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য সাবেক আইনমন্ত্রী ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ চিঠির মাধ্যমে সকল কমিটি ঘোষণা করবেন বলে নির্ভরযোগ্য সূত্র থেকে জানা গেছে।

শনিবার সকাল থেকে বিভিন্ন ইউনিয়ন থেকে নেতাকর্মীরা বিভিন্ন যানবাহনে করে মিছিল ও শ্লোগান দিতে দিতে সম্মেলনস্থলে  জড়ো হতে শুরু করে। কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা বিএনপির সভাপতি আবদুল হাই সেলিম’র সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত আছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ও সাবেক আইনমন্ত্রী ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত আছেন, বেগম হাসনা জসিম উদ্দিন মওদুদ।

বিশ্বস্ত সূত্রে জানা গেছে, বিএনপি, যুবদল, ছাত্রদলের সম্মেলন হলেও কমিটি ঘোষিত নাও হতে পারে, কারণ গত ১১ ফেব্রুয়ারী মওদুদ আহমদের সাথে বিএনপি, যুবদল, ছাত্রদলের নেতৃত্বের সাথে বৈঠকে কমিটি করার জন্য মওদুদ আহমদকে কমিটি করার একক ক্ষমতা দেওয়া হয়েছে। কারা নেতৃত্বে থাকতে চায় তাদেরকে পদ পদবী লিখে আবেদন জমা দিতে বলেন মওদুদ আহমদ। উপজেলা বিএনপির সাধারন সম্পাদকের জন্য সাংগঠনিক সম্পাদক জাহাঙ্গীর ও পৌর বিএনপির সম্পাদক মাহমুদুর রহমান রিপন আবেদন করেছেন বলে জানা গেছে তবে সভাপতি পদে কেউ আবেদন করেছে কিনা তা জানা যায়নি।

সম্মেলন প্রসঙ্গে উপজেলা বিএনপির সভাপতি আবদুল হাই সেলিম বলেন, সম্মেলনের সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন। সম্মেলনের আচরন বিধি করে দেওয়া হয়েছে, কোন নেতার নামে পদ প্রত্যাশী হয়ে শ্লোগান পোস্টার, পেষ্টুন হবে না। কারো নামে শ্লোগান দেওয়া চলবেনা। শুধুমাত্র বেগম খালেদা জিয়া, তারেক রহমান ও মওদুদ আহমদের নামে শ্লোগান হবে। আচরন বিধি মেনে উৎসাহ উদ্দিপনায় সম্মেলন স্বার্থক করতে একযোগে কাজ করছে। আমাদের ৯টি অংগ সংগঠন ও সহযোগী সংগঠনের নেতা কর্মীদের সাথে দফায় দফায় বৈঠক করেছি, সবার একই সিদ্ধান্ত আমরা একটি সুন্দর সফল সার্থ্ক সম্মেলন উপহার দেব।

কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা বিএনপি‘র সাংগঠনিক সম্পাদক জাহাঙ্গীর বলেন, আশা করি আমাদের নেতা ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদের ইচ্ছানুযায়ী সম্মেলন সুন্দর ও সার্থক হবে, আর কমিটির বিষয়ে আমরা বিএনপি, যুবদল, ছাত্রদলের নেতৃবৃন্দ স্যারকে দায়িত্ব দিয়েছি। স্যার (ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ) বলেছেন কার কি আশা তাও আমাকে জানতে হবে। যার যে আশা তার আশা মত দায়িত্ব দিতে পারবো কিনা তাও বিবেচনায় রাখতে হবে। আর যারা দায়িত্বে আছেন তাদেরকেও আমাকে দেখতে হবে।

তিনি আরো বলেন, সম্মেলনের দিন কমিটি ঘোষণা নাও হতে পারে, কারন সম্মেলনের দিন হৈ উল্লাস হয় বলে কমিটি করা সম্ভব নাও হতে পারে। কমিটি যেভাবেই করা হোক দলের স্বার্থে ও আমাদের স্বার্থ রক্ষা করা হবে বিশ্বাস করি। স্যারের প্রতি আমাদের আস্থা ও বিশ্বাস আছে। স্যারকে দায়িত্ব দিলেও তিনি আমাদের সাথে আলোচনা করে কমিটি দিবেন।

বর্তমান পৌর বিএনপির সাধারন সম্পাদক মাহমুদুর রহমান রিপন বলেন, সম্মেলন নিয়ে সবাই একযোগে কাজ করছি সম্মেলন যেন সুন্দর ও সফল হয়। এছাড়া আমদের নেতা মওদুদ আহমদ স্যারকে ডেলিগেট ও কাউন্সিলরা দায়িত্ব দিয়েছি তিনি কমিটি করে দিবেন। কাউন্সিলে কমিটি ঘোষণার বিষয়ে তিনি বলেন, সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির সভায় আমরা স্যারকে সম্পুর্ন দায়িত্ব দিয়েছি, তিনি সম্মেলনে কমিটি ঘোষণা করবেন। বিএনপি, যুবদল, ছাত্রদলের পক্ষ থেকেও স্যারকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। মওদুদ আহমদ বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য, তিনি যে সিদ্ধান্ত ও যে দায়িত্ব আমাদেরকে দেন তা আমরা পালন করবো। আমি উপজেলা সাধারন সম্পাদক পদে আবেদন দিয়েছি। সভাপতি পদে কে কে আবেদন করেছে তা আমি জানিনা, তবে আবদুল হাই সেলিম সভাপতি আপাতত:আছে বলে মনে হচ্ছে। ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদের দিক নির্দেশনা অনুযায়ী যা হবে তা আমরা মানি ও পালন করি। মওদুদ আহমদের নেতৃত্বে আমরা দল করি এবং দল পরিচালনা করি। ফখরুল ইসলামের বিএনপিতে নেতৃত্বের বিষয়ে তিনি কোন মন্তব্য করতে অপারগতা প্রকাশ করেন।

 

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে